বুধবার, ৩১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

ছবি তোলা! হুরমত যেন শিথিল হবার পথে! লুৎফর ফরায়েজী

লুৎফর ফরায়েজীঃ ২০১০ সাল থেকে সোস্যাল মিডিয়ায় এসেছি। শুরু থেকেই দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ছিলাম ছবি আপলোড থেকে মুক্ত থাকবো। সেই দৃঢ়তার উপর অটল ছিলাম এ বছর পর্যন্ত।
কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে বন্যা পীড়িত এলাকায় ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে এবং রোহিঙ্গা মুহাজির ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে অনেকের প্রোপাগান্ডায় প্রলুব্ধ হয়ে দু’টি পোষ্টে ছবি আপলোড দিয়েছিলাম। এ দু’টি পোষ্টই।
আপলোড দেবার পর থেকে নিজেকে কেমন জানি অশুচি মনে হচ্ছিল। যে ভাবটা এখন পর্যন্ত দূর করতে পারছি না। অবশেষে ছবিগুলো ডিলিট করার পরই মনটা খানিক ফ্রেস লাগছে। আলহামদুলিল্লাহ।
ইনশাআল্লাহ আল্লাহ তাআলা যতদিন যিন্দা রাখেন এহেন কর্ম থেকে মুক্ত থাকার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।

যুক্তি ছিল!

যারা বিদেশ থেকে সহযোগিতা করেছেন, তাদের দেখানো দরকার যে, আমরা আপনাদের আমানত পৌঁছে দিয়েছি।
সহজ জবাব!
আমরা আগেই বলেছি, আমাদের সাথে কেবল তারাই অংশ নিবেন, যারা আমাদের উপর পূর্ণ আস্থা রাখবেন। একান্ত বিশ্বস্ত মনে করেন। যে বিশ্বস্ততা দু’টি ছবি আপলোড করে প্রমাণ করতে হয়, এমন বিশ্বস্ততাকে আমি ভাগারে নিক্ষিপ্ত করার পক্ষপাতি।

আপনি যে কাজগুলো করছেন তাতো বিশ্বকে দেখানো দরকার। বিশ্ব মিডিয়ায় আসা দরকার।
সহজ জবাব!
কাজগুলো কার জন্য করছেন? মানুষকে দেখাতে না আল্লাহকে খুশি করতে?
যদি আল্লাহকে খুশি করতে করে থাকেন, তাহলেতো এ যুক্তি পেশ করাটাই হাস্যকর।
যদি মিডিয়ায় আনতে চান, তাহলে ফেইসবুকে ছবি আপলোড দিয়ে আপনি কোন মিডিয়াকে আকৃষ্ট করছেন?
“মিডিয়ায় আমারী ছবি আসা দরকার” এ মানসিকতা কতটুকু রুচিসম্মত?
“আমারটা আসা দরকার” এ মানসিকতা না থাকলে স্বীয় ছবি পোষ্টে কতটুকু আগ্রহ থাকার কথা?

মাসআলা-১
প্রিন্ট করার আগে ডিজিটাল ছবি কতিপয় উলামাগণ জায়েজ বলেছেন। যদিও অধিকাংশ উলামাগণ তা হারাম বলেছেন। তাই যারা জায়েজ ছবি আপলোড করে তাদের ব্যাপারে খারাপ মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকাই নিরাপদ।
তবে সমাজের অনুসৃত উলামাগণ দৃষ্টিকটূ সেলফিবাজী থেকে মুক্ত থাকাই উচিত বলে আমরা মনে করি।

মাসআলা-২
ভিডিও করার মাসআলাটি ভিন্ন। দ্বীনের হিফাযতের মানসে প্রায় সকল উলামাগণ [ব্যতিক্রম দু’ একজন ছাড়া] জরুরী মাসায়েলের উপর, এবং বিভিন্ন অভিযোগের জবাব নির্ভর ভিডিও প্রকাশের অনুমতি প্রদান করেছেন।
আরো জানতে হলে দেখতে পারেনঃ

১- http://ahlehaqmedia.com/3256-2/

২- http://ahlehaqmedia.com/5167-2/

বিঃদ্রঃ

কাউকে আঘাত করতে বা কাউকে কষ্ট দিতে নয়। নিজের অবস্থান পরিস্কার করতে কথাগুলো দ্ব্যার্থহীনভাবে বলা হল।

যেহেতু কিছু উলামাদের মতে বৈধতার সুযোগ আছে, তাই আমভাবে ছবি আপলোডকারী উলামাদের ব্যাপারে বিরূপ মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকা একান্ত জরুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Archives

July 2020
S S M T W T F
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
shares