শুক্রবার, ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

মধ্যরাতের ডাইরী : রোবট সোফিয়াকে নিয়ে কিছু কথা

Image result for রোবট সোফিয়া

মধ্যরাতের ডাইরী : রোবট সোফিয়াকে নিয়ে কিছু কথা

আনাস বিন ইউসুফ 

ভয়ে রীতিমত আমার বুকটা ধরফর করছিল ৷ সোফিয়ার সাথে প্রধানমন্ত্রীর মিষ্টি আলাপন দেখছিলাম ইউটিউবে ৷ বলতেই হয়, নেত্রীর মস্ত বড় একটা কলিজা আছে ৷ মাশাআল্লাহ ৷ সাহসও আছে বেশ ৷

আমার তো ভয়ে বুক কাঁপছিল ৷ অনেক কষ্টে ভিডিওটা শেষ পর্যন্ত দেখলাম ৷ আল্লাহর কসম, প্রতিটা মুহূর্ত আমার মনে হয়েছে, সোফিয়া কেয়ামতের আলমত ৷ আল্লাহ তা’য়ালা তো সেই চৌদ্দ শ’ আগেই বলে দিয়েছেন, “কিয়ামত নিকটবর্তী হয়ে গিয়েছে…”

সোফিয়া দেখতে অনেকাংশে মানব আকৃতির ৷ কিছুটা রুগ্ন রুগ্ন মনে হচ্ছিল ৷ অনেক দিন খাওয়া-দাওয়া নেই, ক্যান্সার শরীরের সব শেষ করে দিয়েছে ৷ যেকোন সময় মৃত্য বরণ করবে— এ ধরনের একটা অসুস্থ নারীর মত মনে হয়েছে সোফিয়াকে ৷ পুরোপুরি কংকাল বলা যাবে না ৷ কংকালের ভেতরটা পুরো খালি থাকে ৷ কিন্তু সোফিয়ার ভেতরে অনেক কিছু ৷
.
অডিয়েন্সে উপস্থিত লোকদের সাথে তাল মিলিয়ে সোফিয়াও হাসছে ৷ ডানে-বামে ঘাড় ঘুরাচ্ছে ৷ চোখের পাতাও বুজছে ৷ অদ্ভূত ৷ ভৌতিক ভৌতিক মনে হচ্ছিল!

আমার ভয়ের মূল জায়গাটা ছিল, জীর্ণশীর্ণ মহিলা সদৃশ চেহারা ৷ আবার মাথায় কন চুল নেই ৷ একটা নারীর মাথায় চুল না থাকলে তাকে যেমন দেখায় ৷ সোফিয়ার টাক মাথার পিছনের অংশে যন্ত্র ফিট করা ৷ আমার ভয়ের মূল কারণ এটাই ৷

তবে আশ্চর্য হলাম, মঞ্চের লোকগুলো একদমই স্বাভাবিক দাঁড়িয়ে আছে ৷ হাসছে, হাততালি দিচ্ছে ৷ কি অদ্ভূত ব্যাপার ৷ বাড়ির বাচ্চাদেরকে দেখালে ওরা হয়তো কয়েকদিন ঘুমাতেও পারবে না ৷

কওমে লুতকে যে জমিনে ধ্বংস করা হয়েছিল সেটার নাম “আল-বাহরুল মাইয়িত” বা মৃত সাগর ৷ শুনেছি, জর্ডানের সে স্থানে নাকি এখন পর্যটন কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে (অথবা হচ্ছে!) ৷

মানব জাতি ডেড সী’কেও ভয় পায় না ৷
.

সোফিয়া খুব হ্যাপি ৷ তার নামের সাথে জয় বাবুর মেয়ের নাম মিলে যাওয়া সে যারপর নাই খুশি ৷ বেজায় আনন্দিত হয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে সে আশির্বাদ করেছে ৷

“ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রচারণা” মানব জগত পেরিয়ে এখন রোবট পর্যন্ত পৌছে গেছে ৷ আগামিতে হয়তো ভিন গ্রহের এলিয়েনও ডিজিটাল চিনে ফেলবে ৷

রোবটের কাছে জানতে চাওয়া হল,
ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্পর্কে তার কী মতামত ৷
রোবটও উত্তর দিল… (আমি তার কথাগুলো বুঝি নাই)

একটা বিষয় লক্ষ করলাম, যে যাই বলুক, রোবট সেটার উত্তরের সাথে “থ্যাংক ইউ” বলছেই ৷

সবশেষ একটা আশঙ্কার কথা বলি,
আজ দুপুরে পার্শবর্তী একটি দোকানে যাই ৷
দোকানদার (নাম বললে অনেকেই চিনে ফেলবে) বলল, আনাস ভাই! মানুষ যদি… তাহলে আল্লাহর ক্ষমতা আর কী রইল… (আল-ইয়াজু বিল্লাহ…)

আমি তাকে যা বলার বলেছি ৷ পরে যেটা মনে হল তা হচ্ছে এই রোবট (ও তার গংরা) মানুষের ঈমান ধ্বংসের চেষ্টাও করবে ৷

হতে পারে সে প্রচেষ্টার অংশ হিসেবেই রোবটকে ঘুরানো হচ্ছে মুসলিম দেশগুলো ৷ শুধু তাই না, মাতাল সৌদি নেতারা নাকি নাগরিকত্বও দিয়েছে অনাগরিককে !!

০৬/১২/২০১৭ || রাত ১১:৩৬

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Archives

October 2020
S S M T W T F
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31  
shares