মঙ্গলবার, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

ফাযায়েলে আমালের লেখক শায়েখুল হাদীস মাওলানা যাকারিয়া কান্ধলভী (রহঃ)-এর সংক্ষিপ্ত জীবনী

নাম ও বংশঃ শায়েখ হযরত মাওলানা যাকারিয়া বিন মাওলানা মুফতী মুহাম্মদ ইয়াহইয়া বিন মাওলানা ইসমাইল বিন সিদ্দীকি কান্ধলভী। বংশসূত্রে হযরত মাওলানা যাকারিয়া (রহঃ) হযরত আবু বকর সিদ্দীক (রাঃ)-এর বংশধর।
.
জন্মঃ ১৩১৫ হিঃ ১১ই রমযান মুতাবেক ১৮৯৮ খ্রীঃ ২রা ফেব্রুয়ারী রোজ বুধবার ইলমের কেন্দস্হল “কান্দালা” (জেলা মুযাকযার নগর, ইউপি) এর পুরাতন ও প্রসিদ্ধ ইলমী বংশে তিনি জন্মগ্রহন করেন, যা দাওয়াত ও তাবলীগের খুব প্রসিদ্ধ স্হান ছিল।
.
শিক্ষা দিক্ষাঃ কুরআন মজীদ, বেহেশতি জেওর ফারসীর প্রাথমিক কিতাবসমূহ নিজ চাচা হযরত মাওলানা মুহাম্মদ ইলিয়াস কান্ধলভী (রহঃ) (মৃত্যুঃ ১৩৬৪ হিঃ) এর নিকট পড়েন। আরবীর প্রাথমিক কিতাবগুলল পিতা হযরত মাওলানা মুফতী মুহাম্মদ ইয়াহিয়া সাহেব (রহঃ)-এর নিকট পড়েন।
.
এরপর আরবী মাধ্যমিক কিতাব পড়ার জন্য ১৩৬৯ হিঃ সনে জামেয়া মাযাহিরুল উলুম সাহরান পুরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। যেখানে তিনি অন্যান্য শ্রদ্ধাভাজনদের তত্বাবধান ছাড়াও নিজ পিতা এবং বিশেষ মুরুব্বী হযরত মাওলানা খলীল আহমদ সাহরানপুরী (রহঃ) (মৃত্যুঃ ১৩৪৬ হিঃ) থেকে বিশেষভাবে ফায়েয হাসিল করেন। তিনি ১৩৩৪ হিজরীতে জামেয়া মাযাহিরুল উলুম থেকে ফযীলতের সনদ হাসিল করেন।
.
শিক্ষাদানঃ শায়েখ হযরত মাওলানা মুহাম্মদ যাকারিয়া (রহঃ) ফারেগ হওয়ার পর পরই ১৩৩৫ হিজরী ১লা মুহাররম মাসে মাসিক ১৫ রুপি ভাতায় মাযাহিরুল উলুম মাদরাসায় প্রাথমিক স্তরের উস্তাদ হিসেবে নিয়োগ পান। সেখানে চেষ্টা ও মেহনতে মাত্র দশ বছরেরও কম সময়ে ১৩৪৫ শায়েখুল হাদীসের মত সম্মানীত ও গুরুত্বপূর্ণ অবস্হান লাভ করেন। সে বছরই তিনি মদীনা মুনওয়ারায় সফর করে নিজ শায়েখ হযরত খলীল আহমদ সাহারানপুরীর কাছে বাইয়াত করার অণুমতি পান, খেলাফত পান।
.
হাদীস শাস্ত্রে যোগ্যতাঃ শায়েখ হযরত মাওলানা মুহাম্মদ যাকারিয়া (রহঃ) জামেয়া মাযাহিরুল উলুমে থাকাকালীন হাদীস শরীফের যে উত্তম খেদমত আঞ্জাম দিয়েছেন তা কারও কাছে অস্পষ্ট নেই। হাদীস শাস্ত্রে তাঁর যোগ্যতা নিম্নক্ত কথা দ্বারাই ভালোভাবে অণুমান করা যায়, তিনি মাযাহিরুল উলূমে ধারাবাহিক ৪৩ বছর হাদীসের দরস দান করেছেন।
.
তখন তিনি আবু দাউদ শরীফ প্রায় ৩০ বার বুখারী শরীফ প্রথম খন্ড ২৫ বার এবং পূর্ণাঙ্গ বুখারী শরীফ ১৬ বার দরস দান করেছেন। এগুলো ছাড়া দীর্ঘদিন, মেশকাত, নাসাঈ, মুয়াত্তা মুহাম্মদ, মুয়াত্তা মালেকসহ অন্যান্য কিতাবের দরস দান করেছেন। শায়েখ হযরত মাওলানা মুহাম্মদ যাকারিয়া (রহঃ) এ যোগ্যতা ও সঠিক সিদ্ধান্তদাতা হওয়ায় ১৩৭০ হিজরী থেকে ১৩৮২ হিজরী পর্যন্ত মাদ্রাসার প্রাণকেন্দ্র দারুল উলুমের মজলিশে শুরার একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন।
.
ইন্তেকালঃ ২রা শাবান হিজাযী (১লা শা’বান হিন্দী) ১৪০২ হিজরী মুতাবেক ২৪ শে মে ১৯৮২ খ্রীষ্টাব্দে মদীনা মুনাওয়ারায় ইন্তেকাল করেন। সেখানেই নিজ শায়েখ মাওলানা খলীল আহমদ সাহারানপুরী (রহঃ) এর পাশে জান্নাতুল বাকীতে দাফন হওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করেন।
.
আল্লাহতায়লা দ্বীনের এই খাদেমকে জান্নাতুল ফিরদাউস দান করেন। আল্লাহুম্মা আমিন।।

Series Navigation<< শাইখুল হাদীস আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক দা.বা. আলোকিত জীবনের উপাখ্যানমনীষীদের জীবনী ০৯ঃ মহাকবি কায়কোবাদ >>

Archives

December 2022
S S M T W T F
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31