রবিবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩রা সফর, ১৪৪২ হিজরি

অগ্রিম টাকা নিয়েও মাহফিলে না যাওয়ার জবাব দিলেন হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী (ভিডিও সহ)

নোয়াখালীর চাটখিলে দিনব্যাপী ওয়াজ মাহফিলের প্রধান বক্তা মাওলানা হাফিজুর রহমান (কুয়াকাটা) অগ্রিম টাকা নিয়ে মাহফিলে যাননি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আর এটি নিয়ে নিউজও হয়েছে কয়েকটি পত্রিকায়। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন ওয়ালে পাওয়া যাচ্ছে।

তবে মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী এক মাহফিলে অভিযোগের বিরুদ্ধে জবাব দিয়েছেন।

জানা যায, গত শনিবার রাতে চাটখিল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড সুন্দরপুরের মাহফিলের জন্য তিনি অগ্রিম টাকা নিয়েও উপস্থিত হননি। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করে। ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করেন চাটখিল পৌরসভার মেয়র চাটখিল মোহাম্মদ উল্লাহ পাটোয়ারী।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও মাহফিল কমিটি জানান, এই আয়োজনে বিগত কয়েক বছর ধরে এখানে ওয়াজ মাহফিল করে আসছিল স্থানীয় এলাকাবাসী।এবার মাহফিলে মাওলানা হাফিজুর রহমান (কুয়াকাটা) কে প্রধান বক্তা হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয়। সেই অনুযায়ী তার সাথে ১০ হাজার টাকা বিনিময়ে চুক্তিও করা হয়।

এ ব্যপারে মাহফিল কমিটির সদস্যরা বলেন, মাওলানা হাফিজুর রহমান (কুয়াকাটা) আমাদের কাছে ৪০ হাজার টাকা অগ্রিম চাইছিলেন। কিন্তু আমরা ১০ হাজার টাকা দিয়ে বাকি টাকা মাহফিল সম্পূর্ণ শেষে দিবো বলি, হয়তোবা আমরা সম্পূর্ণ টাকা না দেয়ার কারণেই তিনি আসেনাই।

পত্রিকার রিপোর্টগুলোতে উল্লেখ করা হয়, মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে ওয়াজ মাহফিলে অগ্রিম টাকা নিয়ে না যাওয়ার আরো অভিযোগ রয়েছে। তিনি গত ২৯ নভেম্বর নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর মাহফিলে প্রধান বক্তা হাফিজুর রহমান (কুয়াকাটা) না আসায় প্যান্ডেল ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

বগাদিয়া কেন্দ্রীয় মসজিদ কমিটির ভারপ্রাপ্ত কোষাধ্যক্ষ ও ওয়াজ মাহফিল আয়োজক কারী রাকিব উদ্দিন জানান, মসজিদের ইমাম রেয়াজুল ইসলামের মাধ্যমে হাফিজুর রহমান (কুয়াকাটার) সাথে যোগাযোগ করা হয়। ৪০ হাজার টাকা দেওয়া হয়। বক্তা ওয়াজ মাহফিলে না আসায় ওই ইমাম পলাতক রয়েছে।

দেশের বর্তমান আলোচিত ওয়ায়েজদের মধ্যে মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকীও একজন। বলার ভঙ্গি এবং সুর তার ওয়াজে ভিন্ন মাত্রা আনে। যে কারণে প্রায় পুরো বাংলাদেশে তিনি বেশ খ্যাতি পেয়েছেন। বছর পাঁচেক আগেও তিনি এক মাহফিলের জন্য ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা নিতেন সেখানে বর্তমানে প্রতিটি মাহফিলের জন্য তাকে দিতে হয় ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। তাকে মাহফিলের অতিথি করা হলে অনেক দূর দূরান্ত থেকে লোকজন ছুটে আসে।

 

সম্প্রতি তার নামে টাকা নিয়ে মাহফিলে না যাওয়ার যে অভিযোগ উঠেছে এ বিষয়ে রাজধানীর উত্তরার বায়তুল মুমিন মাদরাসার মাহফিলের বয়ানে তিনি জবাব দিয়েছেন।

তিনি বলেন, অসুস্থতার জন্য তিনি মাহফিলে যেতে পারেননি। এই নিয়ে পত্র পত্রিকায় লেখালেখি এবং ফেসবুকে বিদ্বেষ ছড়ানো অনুচিত। তিনি তার বিরুদ্ধে ওঠা অন্যান্য অভিযোগেরও জবাব দেন মাহফিলে। হেলিকপ্টারে মাহফিলে যাওয়ার ব্যাপারে যে সমালোচনা রয়েছে সেটিরও জবাব দিয়েছেন মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী।

তিনি ওয়াজের আগে চুক্তি করে কোনো টাকা নেন না বলেও জানিয়েছেন উত্তরার এ মাহফিলে।

ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে ২১ মিনিটের ওই ভিডিওতে চাটখিলের মাহফিলের জন্য অগ্রিম নেয়া টাকা ফেরত দিয়েছেন কিনা সেটি বলেননি। এ ব্যাপারে তার নাম্বারে অনেক চেষ্টা করলেও কল ঢুকেনি।

তার অভিযোগের ভিত্তিতে দেয়া জবাব শুনতে পুরো ভিডিওটি দেখুন। নিচে ভিডিও লিংক দেয়া হলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Archives

September 2020
S S M T W T F
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930  
shares